ফ্রিল্যান্সিং কি?

আমাদের মদ্ধে চারপাশে বেশীরভাগ মানুষই একটা ব্যপার মনে করে যে, ফ্রিল্যান্সিং মনে হয় কোন ধরনের পেশা। অনেক সময় আমরা যারা ফ্রিল্যান্সার হিসেবে কাজ করি তারাও, “আপনি কি করেন?” এ ধরনের প্রশ্নের উত্তরে বলে বসি ফ্রিল্যান্সিং করি। যেটা আসলে একটি অপরিপূর্ণ বাক্য হয়ে যায়।

ফ্রিল্যান্সিং কোন ধরনের পেশা নয়, এটা পেশার একটা ক্যাটাগরি বা ধরন মাত্র। ফুলটাইম, পার্টটাইম, কন্ট্র্যাক্ট জব এর মত ফ্রিল্যান্সিং এক ধরনের জব ক্যাটাগরি মাত্র। আমরা কেউ ফ্রিল্যান্সার হতে পারিনা, যেটা পারি সেটা হলো স্পেসিফিক কোন ধরনের স্কিলে পারদর্শী হওয়া। যেমন আমি ওয়েব ডেভেলপার হিসেবে কাজ করি, তো আমি নিজেকে বলবো আমি একজন ফ্রিল্যান্স (মুক্ত পেশাজীবী) ওয়েব ডেভেলপার। শুধু ফ্রিল্যান্সার বললে সেটা দিয়ে আমি আসলে কি করি সেটা বুঝা যাবেনা, সেটা দিয়ে বুঝা যাবে আমি একজন মুক্ত পেশাজীবী সেটা।

তো এখন থেকে এ ব্যপারটা আমরা ঠিক করে নিবো, আর নিজেদেরকে নিজেদের শুধু ফ্রিল্যান্সার না বলে নিজেদের স্কিলের একজন বলবো।

আউটসোর্সিং কি?

আমরা আরো একটা ভুল টার্ম প্রায়ই ব্যবহার করি আর সেটা হলো আউটসোর্সিং করা।  Out= বাহির source= উৎস। বাহিরের কোন উৎস থেকে কাজ করিয়ে নেয়া আউটসোর্সিং।

আমরা যারা ফ্রিল্যান্সিং কাজের মাধ্যমে আয় করি তারা অন্য কারো আউটসোর্স করা কাজ’ই সাধারনত করে থাকি। সেক্ষেত্রে ফ্রিল্যান্সার যারা আছেন তারা নিজেদেরকে যদি আউটসোর্সিং করে বলে দাবি করে সেটা হবে ভুল। এই টার্মটা’ও ঠিক করে নেয়া দরকার আমাদের।

কোথায় কাজ করবো ?

অনলাইনে অনেক কাজ করার মত মার্কেটপ্লেস আছে, সেগুলো থেকেই সাধারনত বেশীরভাগ ফ্রিল্যান্সাররা কাজ করে থাকে। এছাড়াও অনেকেই নিজের ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে বা সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং এর মাধ্যমে ক্লায়েন্ট খুজেও কাজ করে থাকে। কাজ খুঁজে নিয়ে কাজ করার জন্য কিছু কমন মার্কেটপ্লেসঃ

upwork.com

freelancer.com

fiverr.com

peopleperhour.com

guru.com

অনলাইনে কি কি কাজ করা যায়?

অনলাইনের হরকে ধরনের কাজ করা যায়। লেখালেখি, গ্রাফিক্স এর কাজ, ওয়েব ডিজাইন, ওয়েব ডেভেলপমেন্ট, মিউজিক কম্পোজ, এনিমেশন এ ধরনের শত শত ক্যটাগরির কাজ রয়েছে অনলাইনে। পূর্ণ লিস্ট পেতে মেনশন করা সাইটগুলোর জব সেকশনে গেলেই দেখতে পাবেন।

upwork.com, freelancer.com,  fiverr.com, peopleperhour.com, guru.com ইত্যাদি

 

৯টা-৫টা জব থেকে ফ্রিল্যান্স জব এর পার্থক্য কোথায়?

পার্থক্য আকাশ পাতাল। অফিস জবের ক্ষেত্রে আপনাকে সবসময় একই রুটিন অনুসরন করতে হবে, আপনাকে All in One হতে হবে না। মানে আপনি শুধু আপনার কাজ জানলেই হবে।

অন্যদিকে ফ্রিল্যান্স কাজগুলোতে নিজের স্কিল বিক্রির পাশাপাশি, সেটাকে মার্কেট করা, ক্লায়েন্ট এর সাথে কম্যুনিকেট করা, ফলো-আপ নেয়া, পেমেন্ট বুঝে নেয়া সব কিছু একাই করতে হবে, যেটা বেশ চ্যালেঞ্জিং। অনেক ক্ষেত্রে বাইরের দেশের ক্লায়েন্ট দের সময়ের সাথে সময় মিলিয়ে চলতে গিয়ে রাতের ঘুম নষ্ট করে আপনাকে কাজ করতে হবে। যা শরিরের জন্য অনেক ক্ষতিকর হতে পারে। অনেক সময়ই এমন হতে পারে অনেকদিন ধরে কাজ পাচ্ছেন না, সেসব ক্ষেত্রে ধৈর্য ধরে রাখাটাও একটা বিরাট চ্যালেঞ্জ। তবে কি করবেন সেটা ভেবে চিন্তে নেয়াটাই বুদ্ধিমানের কাজ হবে।

 

আমি কি নিজেকে ফ্রিল্যান্স ওয়ার্কার হিসেবে গড়ে তুলতে পারবো ?

অনেকেই মনে করে অল্প কিছু ফ্রি সময়ে ফ্রিল্যান্স মার্কেটে কাজ করে কিছু টাঁকা কামিয়ে নিবে। তবে বাস্তব হলো অল্প কিছু সময় দিয়ে এ সেক্টরে টিকে থাকা অনেক কষ্টের। আমার দেখা শত শত মানুষ আছে যারা ভাল কাজ জানে তারপরেও ফুলটাইম জব এর পাশাপাশি ফ্রিল্যান্স কাজ করতে গিয়ে করতে পারেনি। এ সেক্টরে ডেডিকেটেড টাইম এবং ডেডিকেশন ছাড়া এগিয়ে যাওয়া অনেক অনেক টাফ। তো কেঁউ যদি ভেবে থাকেন কিছু ফ্রি সময়ে, পড়াশোনার পাশাপাশি বা বাসার কাজ শেষ করে অল্প কিছু সময়ে ফ্রিল্যান্সার হিসেবে কাজ করবেন তাদের বলবো সেক্ষেত্রে এ সেক্টর থেকে খুব বেশী কিছু আশা না করে কাজ করে যাওয়া’ই ভাল হবে। কিছু পেলে খুশি থাকলেন, আর না পেলে কমপ্লেইন করার কিছু নেই।

আর নিজেকে যদি এই সেক্টরের রকস্টার বানাতে চান তাহলে সময় দেয়ার কোন বিকল্প নেই, ডাক্তারদের মত প্রতিনিয়ত পড়াশোনা + রিসার্চ এর উপর রাখতে হবে। আর ভাল একটা সময় দিতে হবে এর পেছনে। এ বিষয়ে বিস্তারিত লেখা পাবেন আমার পরের পোস্টে (৬ জানুয়ারি, ২০১৯)।

 

 

Comments
Kazi Mamun

Kazi Mamun

আমি কাজী মামুন, পেশায় ওয়েব ডেভেলপার। ইউ.আই. ইউ.এক্স এবং ওয়ার্ডপ্রেস নিয়েই কাজ করা হয়। এর বাইরে নতুন নতুন গ্যাজেট নিয়ে ঘাটা-ঘাটি করতে ভাল লাগে। টেকনোলজি নিয়ে টুকটাক লেখালেখি, মাঝে মাঝে ইউটিউব ভিডিও বা পডকাস্ট করতে ভাল লাগে।

আপনার মতামত দিন...