আমাদের দেশে যে সময় থেকে ফ্রিল্যান্স কাজের ব্যপারটি মানুষের মদ্ধে মাত্র শুরু হয়েছিলো তখন কাজ করার জন্য মার্কেটপ্লেস মূলত ছিলো’ই oDesk, Elance, Freelancer. এর মদ্ধে oDesk এবং Elance এক হয়ে পরবর্তীতে UpWork হিসেবে যাত্রা শুরু করে। আর সেই শুরু থেকেই কাজের জন্য সাধারনত ক্লায়েন্টের পোস্ট করা কাজে বিড করে কাজ নেয়াই ছিল মূল উপায়। পরবর্তীতে Fiver আসার পর কাজ করার এ ধরন অনেকটা চেঞ্জ হয়। ক্লায়েন্টের কাজের উপর ফ্রিল্যান্সারদের বিড না করে, বরং ক্লায়েন্ট’ই ফ্রিল্যান্সারদের প্রোফাইল এবং তাদের অফার করা প্রোডাক্ট দেখে তাদের কাছে কাজের অর্ডার দেয়।

তবে সব কিছুর পরে লং টার্ম কাজের ক্ষেত্রে দেখা যায় বেশীরভাগ ফ্রিল্যান্সাররা’ই UpWork এর মডেলটাকেই বেশী প্রিফার করে। কাজের স্কোপ থেকে চিন্তা করলে অনেক ধরনের কাজ করার স্কোপ আছে এই প্লাটফর্মে। হাওয়ারলি মডেল বা ফিক্সড বাজেট যেটাই হোক দুই ধরনের ব্যবস্থাই আছে UpWork এ। Fiver এর মডেল থেকে UpWork এ মূল পার্থক্য হলো ক্লায়েন্ট এর অর্ডার এর জন্য বসে না থেকে নিজেই নিজের স্কিল অনুযায়ী কাজ খুঁজে নিয়ে এপ্লাই করা যায়। Fiver এ’ও এ ধরনের বায়ার রিকোয়েস্ট একটা ব্যপার আছে যতটুকু জানি তবে সেখানে কাজের পরিমান UpWork থেকে কম। জানি কমেন্টে অনেকেই বলবেন, এপ্লাই করতে দিলেই কি, বেশী এপ্লাই করলেই তো একাউন্ট সাসপেন্ড হয়ে যায়। কথাটা একদিকে যেমন সত্য অন্যদিকে সত্য নয়। ব্যপারটা কিন্তু এমনটা ছিলো না, অহেতুক হাজার হাজার উল্টাপালটা বিড এর কারনেই আজকে UpWork কে এতটা স্ট্রিক্ট হতে হয়েছে নতুন একাউন্ট এপ্রুভাল বা সাসপেনশনের ক্ষেত্রে। বেশীরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যায় অনেকেই স্কিল ম্যাচ না করার পরেও জব এ এপ্লাই করছে, একই কভার লেটার কপি-পেস্ট করা, কাজের ধরন না বুঝেই এপ্লাই করা এসব অনেক বেশী হওয়াতে ক্লায়েন্ট বিরক্ত হতো এবং UpWork প্লাটফর্মে নতুন কাজ করানোর ব্যপারে আগ্রহ হাড়িয়ে ফেলতো। বিজনেস এর দৃষ্টিকোণ থেকে চিন্তা করলে UpWork তার কোয়ালিটি মেইন্টেইন করতে চাইলে সেক্ষেত্রে যারা রুলস ফলো করবে না তাদের একাউন্ট ব্যান করবে এটাই স্বাভাবিক।

তবে যারা নিয়ম মেনে জব এ এপ্লাই করে, পেমেন্টের ব্যপারে UpWork এর বাইরে ক্লায়েন্টকে নিয়ে যায়না, তাদের জন্য UpWork একটি চমৎকার প্লাটফর্ম। চারপাশে তাকিয়ে যেকোন টপ রেটেড বা অনেকদিন ধরে আপওয়ার্ক এ কাজ করছে এমন যে কাউকে জিজ্ঞেস করলে দেখবেন তারা সাধারনত এই প্লাটফর্মের বাইরে খুব বেশী কাজ করেনা। এবং তারা এই প্লাটফর্মে অনেক বেশী ফ্লেক্সিবল’ও থাকে। এই বিশ্বাস, বা নির্ভরতা একদিনে আসেনি। UpWork তার কাজের মাধ্যমেই ফ্রিল্যান্সার এবং ক্লায়েন্ট উভয়কেই স্যাটিসফাই করেই এ জায়গায় এসেছে। আসুন এক নজরে এর ভাল কিছু দিক দেখে নেইঃ

১. হাওয়ারলি কাজ করার সুবিধা। এবং হাওয়ারলি কাজের ক্ষেত্রে পেমেন্ট এর গ্যারান্টি দিবে UpWork.

২. নিজের পছন্দমত কাজ খুঁজে নিয়ে বিড করার ব্যবস্থা।

৩. ক্লায়েন্ট এর সাথে কম্যুনিকেট করার জন্য সিস্টেমে ইন্ট্রিগেটেড চ্যাট, ভয়েস চ্যাট এবং ভিডিও চ্যাট এর ব্যবস্থা রয়েছে।

৪. বেশ ভাল সাপোর্ট টিম রয়েছে। স্পেশালি Top Rated ফ্রিল্যান্সাররা এই সুবিধাটা ভালমত আদায় করতে পারেন।

৫. সরাসরি ব্যাঙ্ক একাউন্টে টাঁকা পাঠানো, Wire Transfer, Payoneer এর মাধ্যমে ডলার ট্রান্সফার এর সুবিধা।

৬. পেমেন্ট রিলেটেড যেকোন সমস্যায় Dispute করার ব্যবস্থা, যেটা অন্য প্লাটফর্মগুলোতে আছে কিনা সেটা নিশ্চিতভাবে বলতে পারছিনা।

৭. প্রোফাইল সাজানোর জন্য সুন্দর পোর্টফোলিও সেকশন, নিজের স্কিল হাইলাইট করার জন্য সার্টিফিকেট সেকশন, UpWork এর নিজস্ব কিছু Test রয়েছে, যেগুলো নতুনদের প্রোফাইল সাজাতে এবং হাইলাইটেড হতে অনেক হেল্প করে।

৮. প্রাইমারি এবং সেকন্ডারি স্কিল এর জন্য আলাদা আলাদা স্কিল প্রোফাইল এড করার সুবিধা।

৯. এজেন্সির জন্য রয়েছে টিম তৈরী করে কাজ করার সুবিধা।

 

ওভারওল সব বিবেচনা কর বলা যায়, UpWork বেশ রিলায়েবল একটা প্লাটফর্ম কাজ করার জন্য। স্পেশালি বলবো যারা লং টার্ম ক্লায়েন্ট খুঁজে থাকেন তাদের জন্য এটি একটি চমৎকার প্লাটফর্ম। পাশাপাশি যাদের নিজেদের মার্কেটিং স্কিল বা ক্লায়েন্ট কম্যুনিকেশন স্কিল ভাল তাদের জন্য এটা হতে পারে একটা আদর্শ প্লাটফর্ম। তবে যারা সেভাবে বিড করতে পারেন না, বা ক্লায়েন্ট কম্যুনিকেশন দুর্বল তাদের জন্য এ প্লাটফর্ম বেশ চ্যালেঞ্জিং হতে পারে।


 

কেমন হলো জানাবেন। ভাল লাগলে শেয়ার করতে পারেন বন্ধুদের সাথে।  কোণ প্রশ্ন থাকলে কমেন্ট সেকশনে জানাতে পারেন। ধন্যবাদ সবাইকে।

Comments
Kazi Mamun

Kazi Mamun

আমি কাজী মামুন, পেশায় ওয়েব ডেভেলপার। ইউ.আই. ইউ.এক্স এবং ওয়ার্ডপ্রেস নিয়েই কাজ করা হয়। এর বাইরে নতুন নতুন গ্যাজেট নিয়ে ঘাটা-ঘাটি করতে ভাল লাগে। টেকনোলজি নিয়ে টুকটাক লেখালেখি, মাঝে মাঝে ইউটিউব ভিডিও বা পডকাস্ট করতে ভাল লাগে।

আপনার মতামত দিন...